[bardhaman] - সালানপুরে দুই পঞ্চায়েতে প্রথম বোর্ড শাসকদলের

  |   Bardhamannews

জেলার সাতটি পঞ্চায়েতে সোমবার বোর্ড গঠন হয়েছে। কোথাও দীর্ঘ কয়েক বছর পরে বোর্ড গঠন করেছে তৃণমূল। কোথাও ক্ষমতা ধরে রেখেছে বিরোধী দল। তবে এই বোর্ড গঠনকে ঘিরে কোনও গোলমালের খবর নেই।

এ দিন সালানপুর ব্লকের সালানপুর, এথোড়া ও আল্লাডি, রানিগঞ্জ ব্লকের আমরাসোঁতা, অণ্ডালের শ্রীরামপুর ও কাঁকসার আমলাজোড়া পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠন হয়েছে। সালানপুরের তিনটি পঞ্চায়েতের মধ্যে এই প্রথমবার সালানপুর ও এথোড়া পঞ্চায়েতে একক ভাবে বোর্ড গঠন করতে পেরেছে তৃণমূল। গত বারের মতো এ বারও আল্লাডির ক্ষমতা ধরে রাখতে পেরেছে তারা। এ দিন দুপুরে সালানপুর ও এথোড়ার বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র তৃণমূল কর্মী-সদস্যদের মধ্যে বাড়তি উৎসাহ দেখা গিয়েছে। প্রধান ও উপপ্রধান নির্বাচনের অনুষ্ঠান দেখতে হাজির হয়েছিলেন গ্রামের সাধারণ মানুষজনও। সালানপুর পঞ্চায়েতের ৮টি আসনের মধ্যে ৭টি গিয়েছে তৃণমূলের দখলে। একটি আসন পেয়েছে সিপিএম। কোনও বিরোধিতা ছাড়াই প্রধান নির্বাচিত হন দীপালি বাউরি। উপপ্রধান হন প্রলয় চট্টোপাধ্যায়। দীপালিদেবী বলেন, ‘‘গ্রামের নিকাশি, সাফাই ও রাস্তায় আলোর ব্যবস্থা করাই আমার প্রথম কাজ।’’ প্রশাসন সূত্রে খবর, ১৯৮৪ সালে পঞ্চায়েত গঠনের পরে প্রথমবার ভোটে যেতে কংগ্রেস। পরের বার থেকে টানা চার বার সিপিএমই এই পঞ্চায়েতের দখল নিজেদের হাতে রেখেছিল। দীপালিদেবীর অভিযোগ, ‘‘বিগত বছরগুলিতে সাধারণ বাসিন্দারা নাগরিক পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন।’’ তিনি জানান, বহু বছর থেকে অর্ধনির্মিত অবস্থায় পড়ে থাকা সালানপুরের জল প্রকল্পটি চালু করতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি ডালমিয়া সেচ প্রকল্পটিও চালু করা হবে। প্রাক্তন সিপিএম প্রধান রুপেশ বাউরি বলেন, ‘‘আমরা সব সময় বিরোধীদের নিয়েই চলেছি। কাজ না হওয়ার অভিযোগ ঠিক নয়। এ বার কীভাবে ভোট হয়েছে, তা সাধারণ মানুষ ভালই জানেন।’’...

এখানে সম্পূর্ণ সংবাদ পড়ুন— - http://v.duta.us/_Dwc6gAA

📲 Get Bardhamannews on Whatsapp 💬