[midnapore] - ভগ্নস্বাস্থ্য সেতুর, নেই নজরদারি

  |   Midnaporenews

হয়তো একই ভাবে সব চলত। কলকাতা দিঘা পথে বিভিন্ন নদীর উপর যে সড়ক ও রেলসেতু রয়েছে তা নিয়ে গুরুত্ব দিয়ে ভাবার তেমন আশু প্রয়োজনীয়তা দেখা যায়নি। ২০১৬ সালে কলকাতার পোস্তায় উড়ালপুর ধসে পড়ার পর রাজ্যের সমস্ত সেতুর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে বলে মুখ্যমন্ত্রীর বার্তার পরে অনেক সেতুতেই রঙের পোঁচ পড়েছে। কিন্তু মঙ্গলবার কলকাতার মাঝেরহাটে যে ভাবে সেতু ভেঙে পড়েছে তাতে রাজ্যে বিভিন্ন সড়ক ও রেল লাইনের উপর সেতুর কী হাল তা নিয়ে সরকার যেমন চিন্তিত তেমনই আশঙ্কিত মানুষও। বিভিন্ন নদীর পর থাকা সেতুগুলির হালহকিকত ও তার রক্ষণাবেক্ষণ নিয়ে ইতিমধ্যেই নানা মহলে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

কলকাতা থেকে দিঘার পথে দু’টি গুরুত্বপূর্ণ সেতু হল কোলাঘাটের রেল ও সড়ক সেতু এবং নরঘাটের কাছে হলদি নদীর উপর সড়ক ও রেল সেতু। হলদি নদীর উপরে সড়ক সেতু নির্মাণ ও চালু হয়েছিল ১৯৮২ সালে। প্রায় ১ হাজার ৭১১ ফুট দীর্ঘ ওই সেতুর সংস্কার হয়েছিল ২০১১ সালে। পূর্ত দফতর ওই সেতু তৈরি শুরু করেছিল ১৯৬৬ সালে। কাজ শেষ হয় ১৯৮২ সালে। ভারত ছাড়ো আন্দোলনের শহিদ মাতঙ্গিনী হাজরার নামাঙ্কিত ওই সেতু চালুর ফলে দিঘা যাওয়ার সড়ক পথে হলদি পার হওয়ার বাধা দূর হয়েছিল। শুধু তাই নয়, নন্দীগ্রাম থেকে চণ্ডীপুর হয়ে সড়ক পথে তমলুক শহর সহ রাজ্যের বিভিন্ন অংশে যোগাযোগের সুবিধা হয়। ফলে কাঁথি মহকুমার পাশাপাশি নন্দীগ্রামের বাসিন্দাদের কাছে হলদি নদীর উপর এই সেতুর ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।...

এখানে সম্পূর্ণ সংবাদ পড়ুন— - http://v.duta.us/bbz92gAA

📲 Get Midnaporenews on Whatsapp 💬