কেউ খোঁজ রাখেনি, পায়ে পচন উদ্ধার হওয়া সেই তরুণীর

  |   Calcuttanews

বাঁ পা এতটাই ফুলে রয়েছে যে, সেই পায়ের নীচে রাখা পাশবালিশটাও ছোট লাগছে। পচন ধরে পায়ের সংক্রমণ কোমর পর্যন্ত পৌঁছে এমন আকার নিয়েছে, নড়াচড়া করার অবস্থাটুকুও নেই। এসএসকেএম হাসপাতালের ভিক্টোরিয়া ওয়ার্ডের বারান্দার শয্যায় শোয়া শুভ্রা দাস ওই অবস্থাতেই বললেন, ''মুখ্যমন্ত্রী মায়ের মতো আমার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। ওঁর লোকদের বলেছিলেন, আমার সব চিকিৎসা যেন ঠিক মতো হয়। কেমন চিকিৎসা হয়েছে, আমায় দেখলেই বোঝা যাচ্ছে। পা-টা রাখা যাবে কি না, সেটাই বুঝতে পারছি না।''

গত ২ অক্টোবর চতুর্থীর দিন সুরুচি সঙ্ঘের পুজো উদ্বোধন করে চেতলার দিকে যাওয়ার পথে দুর্গাপুর সেতুর কাছে হঠাৎ গাড়ি থেকে নেমে পড়েন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হাওড়া বালিটিকুরির বাসিন্দা বছর চব্বিশের শুভ্রা জানান, সেখানেই বাড়ি ফেরার বাসে উঠতে গিয়ে পড়ে যান তিনি। কোমর এবং পায়ে চোট লাগে। মুখ্যমন্ত্রীই তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। সঙ্গী কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে সব রকমের চিকিৎসার ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেন। শুভ্রাকে দ্রুত হুমায়ুন কবীর সরণির বি পি পোদ্দার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। যদিও তরুণীর অভিযোগ, ''ওই হাসপাতাল আমায় সে ভাবে দেখেইনি। স্রেফ একটা ইঞ্জেকশন আর কিছু এক্স-রে করে ওই দিনই ছেড়ে দেয়। বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্যও আমার পরিবার অ্যাম্বুল্যান্স পায়নি। আমার বয়স্ক বাবা কোনওমতে একটি ট্যাক্সি ডেকে আনেন।''...

ফটো - http://v.duta.us/-UrlkAAA

এখানে সম্পূর্ণ সংবাদ পড়ুন- - http://v.duta.us/wVNqawAA

📲 Get Calcuttanews on Whatsapp 💬