কবাডির মঞ্চে উত্তরণ এক ঝাঁক তরুণীর

  |   24-Paraganasnews

মেয়ে কবাডি লিগে খেলবে শুনে প্রথমটায় বেঁকে বসেছিলেন বাবা। কিছুতেই মেয়েকে মাঠে নামতে দিতে রাজি ছিলেন না তিনি। বাবার রক্তচক্ষু উপেক্ষা করেই অবশ্য মাঠে নামে মেয়ে। শেষ পর্যন্ত দুর্দান্ত খেলে ফাইনালেও পৌঁছয়।

এরপরে অবশ্য বাবা আর দূরে থাকতে পারেননি। ফাইনালের দিন, নিজে মাঠে আসেন মেয়ের দলের খেলা দেখতে। পোড়খাওয়া প্রৌঢ়কে দেখা যায় সাইডলাইনের ধারে বসে মেয়ে এবং মেয়ের সঙ্গীদের ক্রমাগত পরামর্শ দিয়ে যেতে।

একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন থেকে জয়নগরের প্রত্যন্ত বামনগাছি পঞ্চায়েতের বছর চোদ্দো-পনেরোর এক ঝাঁক মেয়েকে নিয়ে মাস দু'য়েক আগে শুরু হয় 'হোক কবাডি প্রতিযোগিতা।' সংগঠনের কর্ণধার স্মিতা সেন বলেন, ''প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে প্রাথমিক ভাবে প্রচুর সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছিল। প্রত্যন্ত গ্রামের মেয়েদের মাঠে কবাডি খেলতে দিতে রাজি ছিলেন না কেউই। কবাডি খেলবে শুনে কারও কারও বাড়ি থেকে বেরোনো বন্ধ করে দিয়েছিল বাবা-মা।'' বকাবকি, প্রতিবেশীদের কটাক্ষ তো ছিলই। তবে কোনও কিছুই দমাতে পারেনি মেয়েদের। রান্নাবাটি ছেড়ে মাঠে নেমে শেষ পর্যন্ত দেখিয়ে দিল ওরা। জিতে নিল হৃদয়। 'হোক কবাডি' হয়ে থাকল ওদের উত্তরণের মঞ্চ।...

ফটো - http://v.duta.us/VdPGKgAA

এখানে সম্পূর্ণ সংবাদ পড়ুন- - http://v.duta.us/wFgC9QAA

📲 Get 24-Paraganasnews on Whatsapp 💬