পাহাড়ি রাস্তা গড়তে পুরুষদের পাশে মহিলারাও

  |   Purulia-Birbhum-Bankuranews

দু'মাসের দুধের শিশুকে বুকে জড়িয়ে অযোধ্যা পাহাড়ের উপরের গ্রাম থেকে নীচে সন্তর্পণে নামছিলেন আড়শার ধানচাটানির বধূ বিজলি সোরেন। অন্য হাতে ধরা ছাতা। তাঁর গন্তব্য পাহাড়ের নীচে ১২-১৩ কিলোমিটার দূরের রাজপতি গ্রাম। সেখানকার উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে ছেলেকে টিকা দিতে যাচ্ছিলেন তিনি। সঙ্গী তাঁর স্বামী চুনু সোরেন। পথ বলতে দু'পাশের ঝোপের মাঝে পাহাড়ের ঢাল বেয়ে এক ফালি ফাঁকা জায়গা। সেখানেই এবড়ো খেবড়ো পাথর বেয়ে নেমে যাওয়া।

শুধু স্বাস্থ্যকেন্দ্রই নয়, রেশন আনতেও এই পাহাড়ি পথই ভরসা বাসিন্দাদের। বর্ষায় মাটি-পাথর ধুয়ে আরও দুর্গম হয়ে পড়া সেই রাস্তা নিজেরাই সংস্কার করতে হাত লাগিয়েছেন ধানচাটানির বাসিন্দারা। বুধবার থেকে শুরু হয়েছে সেই কাজ।

বিজলি বলেন, ''আট-নয় কিলোমিটার পথ পুরোটাই এবড়ো-খেবড়ো। বর্ষায় রাস্তা আরও ভয়ঙ্কর হয়েছে। অসাবধান হলেই গড়িয়ে পড়ব।'' তাঁর স্বামী বলেন, ''প্রতি মুহূর্তে সতর্ক হয়ে পা ফেলতে হচ্ছে।''...

ফটো - http://v.duta.us/20YmiAAA

এখানে সম্পূর্ণ সংবাদ পড়ুন- - http://v.duta.us/QkAiiAAA

📲 Get Purulia-Birbhum-Bankuranews on Whatsapp 💬