যাওয়ার হলে চলে যাও, স্পষ্ট বার্তা ববির, লিখিত নির্দেশ দিন, পাল্টা সব্যসাচী

  |   West-Bengalnews

আরও চড়ল সংঘাতের সুর। রবিবার বিধাননগরের কাউন্সিলদের সঙ্গে বৈঠক সেরে তৃণমূল ভবন থেকে বেরনোর সময়েও মেয়র সব্যসাচী দত্ত সম্পর্কে রেখেঢেকে মন্তব্য করেছিলেন ফিরহাদ হাকিম। কিন্তু সোমবার সব্যসাচীকে ‘বেইমান, মিরজাফর’ বলে আক্রমণ করলেন ফিরহাদ। ‘‘যিনি এ সব বলছেন, তিনি নিজে কী, এক বার ভেবে দেখুন,’’ পাল্টা বললেন সব্যসাচীও। বিধাননগরের পুরভবনে ঢুকতে বারণ করা হয়েছে সব্যসাচীকে, রবিবার এমনই জানা গিয়েছিল তৃণমূল সূত্রে। কিন্তু সোমবার সব্যসাচীর পাল্টা চ্যালেঞ্জ— আজই পুরসভায় যাব, কারও ক্ষমতা থাকলে আমাকে আটকান।

বিজেপি নেতা মুকুল রায় এবং বিধাননগরের মেয়র তথা রাজারহাট-নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত রবিবার রাতে এক ফ্রেমে ধরা দেওয়ার পর থেকেই তৃণমূলের প্রতিক্রিয়া আরও তীব্র হয়েছে। কয়েক মাস আগে সব্যসাচীর বাড়িতে লুচি-আলুর দম খেতে গিয়েছিলেন মুকুল। তখনও তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছিল তৃণমূলে। সব্যসাচীর ভবিষ্যৎ নির্ধারণের জন্য বিধাননগর কর্পোরেশনের কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে বসেছিলেন ফিরহাদ হাকিম, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকরা। শেষ পর্যন্ত সব্যসাচীকে সরানো হয়নি। বৈঠক শেষে সাংবাদিক সম্মেলন করে ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছিলেন, সব্যসাচী ভুল করেছেন এবং এমন ভুল যাতে আর না করেন, সে বার্তা কঠোর ভাবেই তাঁকে দিয়ে দেওয়া হয়েছে।...

ফটো - http://v.duta.us/sNaxEgAA

এখানে সম্পূর্ণ সংবাদ পড়ুন— - http://v.duta.us/1QunNQAA

📲 Get West-Bengalnews on Whatsapp 💬